আধুনিক তথ্য-প্রযুক্তি ও বাংলাদেশ রচনা

আধুনিক তথ্য-প্রযুক্তি ও বাংলাদেশ রচনা

সংকেতঃ ভূমিকা, তথ্য-প্রযুক্তি কি, তথ্য-প্রযুক্তি ও বাংলাদেশ,ফাইবার অপটিক ক্যাবলে বাংলাদেশ, ই-পার্লামেন্ট ও আধুনিক বাংলাদেশ; বাংলাদেশের তথ্য প্রযুক্তি, জাতীয় জীবনে তথ্য-প্রযুক্তি, তথ্য-প্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশের সম্ভাবনা; আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির ভাল-মন্দ; উপসংহার।

ভূমিকাঃ “information is power” অর্থাৎ তথ্যই শক্তি। আধুনিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সাথে অগ্রসর হওয়ার প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে নেই বাংলাদেশও। তথ্য প্রযুক্তির মহাসড়ক খ্যাত সাবমেরিন ক্যাবলের সাথে সংযুক্ত হওয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশ অন্তর্ভুক্ত হয়েছে আধুনিক বিশ্বের সকল উন্নত প্রযুক্তি সাথে। যোগাযোগের এই উন্নত প্রযুক্তির ফলে সমগ্র বিশ্বের তথ্য ভান্ডার যেন এক সূত্রে গাঁধা হয়ে গেছে। আর তাই উন্নত বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশও এগিয়ে যাচ্ছে আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর উজ্জ্বল ভবিষ্যতের দিকে।

তথ্য প্রযুক্তি কিঃ তথ্য প্রযুক্তি বলতে তথ্য সংগ্রহ এবং এর ব্যবহারকেই বোঝানো হয়। একে information technology  বা IT নামেও অভিহিত করা হয়।  তথ্য প্রযুক্তি মূলত একটি সমন্বিত প্রযুক্তির নাম। টেলিযোগাযোগ, ভিডিও, অডিও , কম্পিউটিং, সম্প্রসারসহ নানাবিধ প্রযুক্তির সমন্বয়ে গড়ে উঠা এক উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থাই আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি। এক কথায় কম্পিউটার, ইন্টারনেট ও টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার মাধ্যমে যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও পরিবেশনের উন্নত ও দ্রততম মাইক্রো-ইলেকট্রনিক ব্যবস্থার নাম আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি।

তথ্য প্রযুক্তি ও বাংলাদেশঃ একবিংশ শতাব্দীর এই বিশ্বায়নের যুগে তথ্য ও প্রযুক্তির ব্যবহার সর্বত্র বিরাজমান। বাংলাদেশেও এর ব্যবহার ব্যাপকভাবে বিস্তৃতি লাভ করেছে, প্রযুক্তির ব্যবহার ছাড়া আমাদের পৃথিবী যেন দিক ভ্রান্ত হয়ে পড়বে। আর তাই আধুনিক বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশও আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়নে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান ও দপ্তরগুলো। পাশাপাশি এদেশের জনগোষ্ঠীকে তথ্য ও প্রযুক্তিতে দক্ষ করে তুলতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেছে সরকার। এই ধারাবাহিকতায় অতি সম্প্রতি বাংলাদেশ যুক্ত হয়েছে তথ্য প্রযুক্তির হাইওয়ে খ্যাত সাবমেরিন ক্যাবল লিঙ্কের সাথে। সারা দেশের উপজেলা গুলোতে স্থাপন করা হয়েছে আধুনিক তথ্য সেবা কেন্দ্র। রাজধানীসহ দেশের জেলা শহরগুলোতে দেয়া হয়েছে উন্নত প্রযুক্তির সব উপকরণ ও দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা দেশের অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে চালু করা হয়েছে চার্জ ফ্রি ইন্টারনেট সেবা, যা ওয়াই ফাই নামে পরিচিত।

দেশের অনেক প্রাথমিক বিদ্যালয় সংযুক্ত হয়েছে কম্পিউটার ও মাল্টিমিডিয়া ব্যবহারের মাধ্যমে ক্লাস নেয়ার সুবিধা। ফলে প্রযুক্তি ব্যবহারের পাশাপাশি উন্নত জ্ঞান ছড়িয়ে পড়েছে দেশব্যাপী। প্রযুক্তিবিদ্যার সীমাহীন কল্যাণে আমাদের জীবন যাত্রায় নিয়ে এসেছে ব্যাপক পরিবর্তন। ইন্টারনেট সুবিধার কারণে এখন ঘরে বসেই সম্পন্ন হচ্ছে বহু জটিল কাজ। অর্থনৈতিক লেনদেনের ক্ষেত্রেও এসেছে বৈপ্লবিক পরিবর্তন। আর এর সবই সম্ভব হয়েছে আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির কল্যাণে।

ফাইবার অপটিক ক্যাবলে বাংলাদেশঃ ফাইবার অপটিক ক্যাবলের উদ্ভব তথ্য আদান প্রদানের সম্ভাবনাকে আরো গতিশীল করে তুলছে। ফলে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবস্থাপনায় এসেছে অভাবনীয় সাফল্য।

ই-পার্লামেন্ট ও আধুনিক বাংলাদেশঃ ই-পার্লামেন্ট বা ইলেকট্রনিক সুবিধা সংবলিত সংসদ আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে অনন্য ভূমিকা পালন করতে পারে। ই-পার্লামেন্ট জনগণকে উন্নতমানের সেবা দিতে পারে। তথ্য প্রযুক্তিই হতে পারে এদেশের জন্য অধিকতর স্বচ্ছতার ও নিশ্চিতকরণের মাধ্যম।

জাতীয় জীবনে তথ্য প্রযুক্তিঃ উন্নত বিশ্বের প্রতিটি দেশ তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তির সাথে নিবিড় সেতুবন্ধনের মাধ্যমে নিজেদের এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। আধুনিক সভ্যতার ছোঁয়ায় আমাদের জাতীয় জীবনেও দেখা দিয়েছে তথ্য প্রযুক্তির অনিবার্য প্রয়োজন। আমাদের জাতীয় জীবনের অংশ হিসেবে প্রতিনিয়ত প্রযুক্তিগত বহুদিক যুক্ত হয়েছে এবং হচ্ছে। কৃষি, শিক্ষা, অর্থনীতি, সমাজ ও সস্কৃতির পরিমন্ডলে প্রযুক্তির ব্যবহার আমাদের জীবনকে করে দিয়েছে সহজ ও সাবলীল। চিকিৎচা ক্ষেত্রে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার মানুষকে প্রতিদিন নতুন করে জীবনদান করছে, রক্ষা করছে মরণব্যাধীর হাত থেকে। শিক্ষাক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন সূচনার মধ্য দিয়ে নতুন দিগন্তের সূচনা করেছে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার।

তথ্য প্রযুক্তির খাতে বাংলাদেশের সম্ভাবনাঃ বাংলাদেশ এ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার এ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিস (BASIS) এর উদ্যোগে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়-এবারই প্রথম আইসিটি খ্যাতে রপ্তানি আয় ১০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে। ২০১২ সালে সফটওয়্যার ও আইসিটি খাতে রপ্তানি প্রবৃদ্ধি হয়েছে গড়ে ৫০ ভাগ । এ প্রবৃদ্ধি রপ্তানিতে দেশের শীর্ষস্থানীয় ১০টি খাতের মধ্যে অন্যতম। ২০১২-১২ অর্থ বছরের এখাতে রপ্তানি বেড়ে  দাড়িয়েছে ১০১.৬৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। দেশের আইসিটি খাতে এটি যুগান্তকারী অর্জন।

আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির ভাল-মন্দঃ বিজ্ঞানের জয়যাত্রায় যেমন ভালো দিক রয়েছে তেমনি খারাপ দিকও রয়েছে। আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার মানুষের জীবন যাত্রায় ভিন্নমাত্রা যোগ করেছে। বৈদেশিক বাণিজ্যের সুযোগ, শিক্ষা, চিকিৎচা, ব্যবসা-বানিজ্য সহ জীবনযাত্রার মানে ব্যাপক পরিবর্তন সূচীত হয়েছে আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির কল্যাণে। বিজ্ঞানের এই নতুন ধারা আমাদের দূরত্বকে করে দিয়েছে সহজ অতিক্রম। মুহুর্তে তথ্য চলে যাচ্ছে পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে। আর এই সবই সম্ভব হচ্ছে আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির কল্যাণে। প্রযুক্তির এই সকল ভালো দিকের পাশাপাশি রয়েছে খারাপ বা কিছু মন্দ দিকও। অবাধ তথ্য আদান-প্রদানের সুযোগ থাকাতে চুরি হয়ে যাচ্ছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ গোপন তথ্য। অনলাইনে অবাধ ব্যবহারের কারণে ভুল সংবাদ মুহুর্তে বিভ্রান্ত করতে পারে অসংখ্যক মানুষকে।

উপসংহারঃ সম্ভাবনার উজ্জ্বল দুয়ারে দাড়ানো একটি দেশ আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ। এদেশের উন্নতিকে ত্বরান্বিত করতে আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির নির্ভর দেশ গঠনের কোনো বিকল্প নেই। আর তাই আমাদের আরো বেশি তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর হতে হবে এবং এই খাতকে শক্তিশালী করার মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!