কালোজিরার উপকারিতা

কালো জিরার উপকারিতাঃ (ইংরেজি fennel flower) একটি মাঝারি আকৃতির মৌসুমী গাছ, একবার ফুল ও ফল হয় । এর বৈজ্ঞানিক নাম Nigella Sativa Linn . এর স্ত্রী পুরুষ দুই ধরনের ফুল হয়। রং সাধারণত হয় নীলচে সাদা (জাত বিশেষে হলুদাভ) পাচটি পাপড়ি বিশিষ্টি। কিনারায় একটা বাড়তি অংশ থাকে। তিন কোনে আকৃতির কালো রং এর বীজ হয়। গোলাকার ফল হয় এবং প্রতিটি ফলে ২০-২৫ টি বীজ থাকে। আয়ুবের্দীয়, ইউনানী, কবিরাজী ও লোকজ চিকিৎসায় ব্যবহার হয়। মশলা হিসাবে ব্যাপক ব্যবহার হয়ে থাকে, এটি পাঁচ ফোড়নের একটি উপাদান। বীজ থেকে পাওয়া তেল।          আরো পড়ুন>>> অ্যালোভেরার উপকারিতা

কালোজিরার উপকারিতা

কালোজিরার উপকারিতা

কালোজিরার উপকারিতা

১/ গর্ভাবস্থায় ও দুই বছরের কম বয় সের বাচ্চাদের কালোজিরার তেল খাওয়ানো উচিত নয়। তবে বাহ্যিক ভাবে ব্যবহার করা যাবে।

২/ হজমের সমস্যায় ১-২ চা চামচ কালোজিরা বেটে পানির সঙ্গে খেতে থাকুন। এভাবে প্রতিদিন দু-তিন বার খেলে এক মাসের মধ্যে হজম শক্তি বেড়ে যাবে। পাশাপাশি পেট ফাপা ভাবও দূর হবে।

৩/ জ্বর, ব্যথা, সর্দি-কাশিতে ১ চা-চামচ কালোজিরার সঙ্গে তিন চা-চামুচ মধু ও ২ চা-চামচ তুলসি পাতার রস মিশিয়ে প্রতিদিন একবার সেবন করুন। কালোজিরার বেটে কপালে প্রলেপ দিন যদি সর্দি বসে যায়। একই সঙ্গে পাতলা পরিস্কার কাপড়ে কালোজিরা বেধে শুকতে থাকুন, শ্লেষ্মা তরল হয়ে ঝরে যাবে। তাড়াতাড়ি ভালো ফল পেতে বুকে ও পিঠে কালোজিরার তেল মালিশ করুন।

৪/ মায়েদের বুকের দুধের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে প্রতিদিন রাত্রে শোবার আগে ৫-১০ গ্রাম কালোজিরা মিহি করে দুধের সঙ্গে খেতে থাকুন। ইনশাল্লাহ মাত্র ১০-১৫ দিনে দুধের প্রভাব বেড়ে যাবে। এছাড়া এ সমস্যা সমাধানে কালোজিরার ভর্তা করে ভাতের সঙ্গে খেতে পারেন।

৫/ কপালের দুই পাশ এবং কানের পাশে দিনে ৩-৪ বার কালোজিরার তেল মালিশ করুন মাথা ব্যথা ভালো হয়ে যাবে।

৬/ নিয়মিত কালোজিরা খান। এটি মস্তিস্কে রক্ত চলাচল বাড়িয়ে দেয়। যার দরুন স্মরণ শক্তি বৃদ্ধি পায়। এর সঙ্গে এটি প্রাণশক্তি বাড়ায় ও ক্লান্তি দুর করে।

কালো জিরার উপকারিতা

৭/ কালোজিরা লিভার ক্যান্সারের জন্য দায়ী আফলাটক্সিন নামক বিষ ধ্বংস করে। তাই যারা লিডার ক্যান্সারে আক্রান্ত তারা আজ থেকে খেতে শুরু করে দিন।

৮/ চুল পড়া রোধে কালোজিরা নিয়মিত ভাবে খান এতে আপনার চুল পর্যাপ্ত পুষ্টি পাবে। ফলে চুল পড়া বন্ধ হবে। আর ভালো ফল পেতে চুলের গোড়ায় এর তেল মালিশ করতে থাকুন।

৯/ ডায়াবেটিস রোগিরা এক চিমটি পরিমাণ কালোজিরা এক গ্লাস পানির সঙ্গে প্রতিদিন সকালে খালি পেটে খেয়ে দেখুন, রক্তে গ্লূকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে একসময় ডায়াবেটিস কমে যাবে।

১০/ উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে কালোজিরার তেল ব্যবহার করুন। শ্বাসকষ্ট বা হাঁপানি দূর করে। হৃদরোগ নিয়ন্ত্রণ করে।

১১/ কালোজিরা যৌন ব্যাধি ও স্নায়ুবিক দুর্বলতায় আক্রান্ত রোগীদের জন্য অতি উৎকৃষ্ট ঔষধ।

১২/ শুলবেদনা ও প্রসুতি রোগে কালোজিরা অত্যধিক উপকারী। ব্ররুনের জন্যে এটি উত্তম ঔষধ।

১৩/ মূত্রথলির পাথর ও জন্ডিস থেকে আরোগ্য লাভ করতে কালোজিরা খান নিয়মিত যতবার পারেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
error: Content is protected !!