বাংলা কবিতা

বাংলা কবিতাঃ আপনাদের জন্য নিয়ে এলাম অনেক সুন্দর ও মজার সব বাংলা কবিতা। আশা করছি আপনাদের কাছে অনেক ভালো লাগবে। Read more>>>কবিতা

বাংলা কবিতা

স্বদেশ
আহসান হাবীব

বাংলা কবিতা

এই যে নদী

নদীর জোয়ার

নৌকা সারে সারে,

একলা বসে আপন মনে

 

বসে নদীর ধারে

এই ছবিটি চেনা !!

মনের মধ্যে যখন খুুশি

এই ছবিটি আঁকি

 

এক পাশে তার জারুল গাছে

দুটি হলুদ পাখি, এমনি পাওয়া এই ছবিটি

কড়িতে নয় কেনা !!

মাঠের পর মাঠ চলেছে

 

নেই যেন এর শেষ

নানা কাজের মানুষগুলো

আছে নানান বেশ,

মাঠের মানুষ যায় মাঠে আর

 

হাটের মানুষ হাটে,

দেখে দেখে একটি ছেলের

সারাটাদিন কাটে !!!!

 

এই ছেলেটির মুখ

সারাদেশের সব ছেলেদের

মুখেতে টুকটুক !!

 

কে তুমি ভাই,

প্রশ্ন করি যখন,

ভালবাসার শিল্পী আমি,

বলবে হেসে তখন !!

 

এই যে ছবি এমনি আঁকা

ছবির মত দেশ,

দেশের মাটি দেশের মানুষ

নানান রকম বেশ,

 

বাড়ি বাগান পাখ-পাখালি

সব মিলে এক ছবি,

নেই তুলি নেই রং তবুও

আঁকতে পারি সবই !!!!

বাংলা কবিতা

ছড়া
আহসান হাবীব

ঝাউয়ের শাখায় শন শন শন

মাটিতে লাটিম বন বন বন

বাদলার নদী থৈ থৈ থৈ

মাছের বাজার হৈ হৈ হৈ !!

 

ঢাকিদের ঢাক ডুমডুমাডুম

মেঘে আর মেঘে গুড়ুমগুড়ুম

দুধকলাভাত সড়াত সড়াত

আকাশে বাজে চড়াৎ চড়াৎ !!

 

ঘাস বনে সাপ হিস হিস হিস

কানে কানে কথা ফিস ফিস ফিস

কড়কড়ে চটি চটাস চটাস

রেগেমেগে চড় ঠাস ঠাস ঠাস !!

 

খোপের পায়রা বকম বকম

বিয়ের জলিশ গম গম গম

ঘাটের কলসি বুট বুট বুট

আঁধাঁরে ইঁদুর কুট কুট কুট !!

 

বেড়ালের ছানা ম্যাও ম্যাও ম্যাও

দুদিনের খুকু ওঁয়াও ওঁয়াও !!!!

ঘুমের আগে
আহসান হাবীব

ঘুমের আগে

জানো মা, পাখিরা বড় বোকা, ওরা কিছুই জানে না

যত বলি, কাছে এসো, শোনো শোনো,

কিছুতেই মানেনা !!

 

মিছেমিছি কেন ওরা ভয় পায়, ভয়ের কি আছে?

বোঝেনা বোকারা, আমি ভালোবাসি তাই ডাকিকাছে !!

দেখোনা,যখন কাল আমাদের আম বাগানের

পুবধারে ওরা সব বসিয়েছে আসর গানের,

 

আমি গিয়ে চুপ চুপে কিছু দূরে বসেছি যখন,

গান ভুলে বোকাগুলো একসাথে পালালো তখন !!!!

ওরা কি জানেনা, আমি গান বড় ভালোবাসি,

তাই যখনি ওদের দেখি চুপে চুপে কাছে চলে যাই !!

রুপকথা
আহসান হাবীব

রুপকথা

খেলাঘর পাতা আছে এই এখানে,

স্বপ্নের ঝিকিমিকি আঁকা যেখানে !!

এখানে রাতের ছায়া ঘুমের নগর,

চোখের পাতায় ঘুম ঝরে ঝরঝর !!

 

এইখানে খেলাঘর পাতা আমাদের,

আকাশের নীল রং ছাউনিতে এর !!

পরীদের ডানা দিয়ে তৈরি দেয়াল,

প্রজাপতি রং মাখা জানালার জাল !!

তারা ঝিকিমিকি পথ ঘুমের দেশের,

 

এইখানে খেলাঘর পাতা আমাদের

ছোট বোন পারুলের হাতে রেখে হাত,

সাতভাই চম্পার কেটে যায় রাত !!

 

কখনও ঘোড়ায় চড়ে হাতে নিয়ে তীর,

ঘুরে আসি সেই দেশ চম্পাবতীর !!

এইখানে আমাদের মানা কিছু নাই,

নিজেদের খুশি মত কাহিনী বানাই !!!!

অসম্ভব নয়
সুকুমার রায়

এক যে ছিল সাহেব, তাহার

গুণের মধ্যে নাকের বাহার !!

তার যে গাধা বাহন, সেটা

যেমন পেটুক তেমনি ঢ্যাঁটা !!

 

ডাইনে বললে যায় সে বামে

তিন পা যেতে দুবার থামে !!

চলতে চলতে থেকে থেকে

খানায় খন্দে পড়ে বেঁকে !!

 

ব্যাপার দেখে এম্নিতরো

সাহেব বললে সবুর করো-

মামদোবাজি আমার কাছে?

এ রোগের ও ঔষধ আছে !!

 

এই না বলে ভীষন ক্ষেপে

গাধার পিঠে বসল চেপে

মুলোর ঝুটি ঝুলিয়ে নাকে

আর কি গাধা ঝিমিয়ে থাকে?

 

মুলোর গন্ধে টগবগিয়ে

দৌড়ে চলে লম্ফ দিয়ে-

যতই ছোটে ধরব বলে

ততই মুলো এগিয়ে চলে !!

 

খাবার লোভে উদাস প্রাণে

কেবল ছোটে মুলোর টানে-

ডাইনে বাঁয়ে মুলোর তালে

ফেরেন গাধা নাকের চালে !!!!

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!