লেবুর উপকারিতা

লেবুর উপকারিতাঃ লেবুর অনেক গুণ। লেবুর শরবত একটি আদর্শ স্বাস্থ্যসম্মত পানীয়। মাত্র একটি মাঝারি আকৃতির লেবু থেকে চল্লিশ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি বা এসকরবিক এসিড পাওয়া যায় যা একজন মানুষের দৈনিক চাহিদা পুরনের জন্য যথেষ্ট। ভিটামিন সি দেহের রোগ প্রতিরোধকারী কোষগুলোর কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। শরীরের কোনো অংশ কেটে গেলে বা ক্ষত হলে দ্রুত গতিতে কোলাজেন কোষ উপাদান তৈরি করে ক্ষত নিরাময়েও সাহায্য করে এই ভিটামিন সি। লেবুতে পর্যাপ্ত পরিমাণ সাইট্রিক এসিড বিদ্যমান যা ক্যালসিয়াম নির্গমন হ্রাস করে পাথুরী রোগ প্রতিহত করতে পারে। লেবুর খোসার ভেতরের অংশে রুটিন নামের বিশেষ ফ্ল্যাভানয়েড উপাদান আছে যা শিরা এবং রক্তজালিকার প্রাচীরকে যতেষ্ট শক্তিশালী এবং সুরক্ষা দেয়। লেবুর উপকারিতা অনেক বেশি ভালো। Read more>>> বেলের উপকারিতা

লেবুর উপকারিতা

লেবুর উপকারিতা

১. ওজন কমাতেঃ  সকালে উঠে অনেকেই খান লেবুর সরবত। জানেন কি এতে শুধু ওজন কমা নয়, আরও অনেক উপকার পাচ্ছেন আপনি। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো থেকে শুরু করে পেট পরিস্কার রাখার মতো প্রচুর উপকার করে লেবু।

২. হজম শক্তি বাড়ায়ঃ লেবুর রস শরীর থেকে টক্সিন দূর করে। বদহজম, বুক জ্বালার সমস্যাও সমাধান করে লেবু পানি।

৩. পেট পরিস্কার রাখেঃ শরীর থেকে অপ্রয়োজনীয়, ক্ষতিকারক পদার্থ বের করতে সাহায্য করে লেবু পানি। ফলে ইউরিনেশন ভাল হয়। লিভার ভাল থাকে।

৪. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাঃ লেবুর মধ্যে থাকা প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি সর্দি-কাশির সমস্যা দূর করতে অব্যর্থ । স্নায়ু ও মস্তিস্কের ক্ষমতা বাড়ায়। ফুসফুস পরিস্কার করে হাঁপানি সমস্যার উপশম করে।

৫. পি এইচ ব্যালান্সঃ লেবু শরীরের পিএইচ ব্যালান্স সঠিক রাখতে সাহায্য করে। লেবুর মধ্যে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড মেটাবলিজমের পর ক্ষার হিসেবে কাজ করে। ফলে রক্তের পিএইচ ব্যালান্স বজায় থাকে।

৫. ত্বকঃ লেবুতে থাকা ভিটামিন সি ও অন্যান্য অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট ত্বকের বলিরেখা দূর করতে সাহায্য করে। ব্যাকটেরিয়া রুখে অ্যাকনে সমস্যার সমাধান করে। রক্ত পরিস্কার রেখে ত্বকের দাগ ছোপ দূরে রাখে।

৬. এনার্জিঃ এনার্জি বাড়িয়ে মুড ভাল রাখে লেবু খেলে শরীরে পজিটিভ এনার্জি বাড়ে। উত্কন্ঠা ও অবসাদ দূরে রেখে মুড ভাল রাখতে সাহায্য করে লেবু।

৭. ক্ষত সারায়ঃ লেবুর মধ্যে থাকা অ্যাবসরবিক অ্যাসিড ক্ষতস্থান দ্রুত সারাতে সাহায্য করে। হাড়, তরুরাস্থি ও টিস্যুর স্বাস্থ্যা ভাল রাখে।

৮. শ্বাসঃ লেবু ফুসফুস পরিস্কার রাখার ফলে শ্বাস-প্রশ্বাস তাজা রাখে। খাওয়ার পর লেবু পানি দিয়ে মুখ ধুলে ব্যাকটেরিয়া দূর হয়।

৯. লিস্ফ সিস্টেমঃ গরম পানিতে লেবু দিয়ে খেলে শরীর হাইড্রেটেড থাকে। শরীরে ফ্লূইডের সঠিক মাত্রা বজায় রেখে কোষ্ঠকাঠিন্য, ক্লান্তি, রক্তচাপজনিত সমস্যা দূরে রাখে। ঘুম ভাল হয়।

১০. ওজনঃ সব শেষে আসি ওজনের কথায়। লেবুতে থাকা পেকটিন ফাইবার খিদে কমাতে সাহায্য করে। সকালে উঠে লেবু দিয়ে গরম পানি খান। সারা দিন কোন খাবার খাবেন, কোনটা খাবেন না তা বেছে নিতে সাহায্য করে লেবু পানি।

ত্বক ও চুলের যত্নে লেবু

ত্বক ও চুলের যত্নে লেবু

লেবু বহু গুণসম্পন্ন একটি ভেষজ। আমাদের দেশে কয়েক ধরনের লেবু পাওয়া যায়। এর মধ্যে পাতিলেবু , বাতাবিলেবু, কাগজিলেবু উল্লেখযোগ্য। লেবুতে থাকা ভিটামিনের মধ্যে অন্যতম হলো সি। ভিটামিন সি-তে পরিপূর্ণ থাকে এই ভেষজ ফলটি। লেবু ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাসসৃষ্ট বিভিন্ন রোগ দূর করে এবং দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এ ছাড়া লেবুতে থাকা ভিটামিন সি শরীরে আয়রনের শোষণ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। ত্বক ও চুলের যত্নে লেবু অত্যন্ত কার্যকর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
error: Content is protected !!