পান্তা ভাত

পান্তা ভাতঃ আপনাদের জন্য নিয়ে এলাম সবার প্রিয় খাবার পান্তা ভাত নিয়ে অসাধারণ কিছু কথা। আশা করছি পড়তে পেরে ও জানতে পেরে অনেক ভালো লাগবে।                                                                                                                                                                                     আরো পড়ুন>>> সাদা ভাত

পান্তা ভাত

পান্তা ভাত

সাধারণত সারা দিন খাওয়ার পর যে ভাত পরের দিনের জন্য সংরক্ষণ করে রাখা হয় তাই মূলত পান্তা ভাত। এই ভাতে রাতের বেলা পানি ঢেলে পরের দিন তা পানিসহ খেতে হয়। এই খাবার গ্রাম অঞ্চলে মানুষ এতো বেশি ভালোবাসে যেনো সকালে ঘুম থেকে উঠে এই ভাত না খেয়ে কাজে যাবে না। এই ভাত না খেলে মনে হয় সারাটা দিন আজ কোন কাজই করার মতো কোন শক্তি থাকবে বলে মনে হয় না। এই ভাত শরীরে শক্তি যোগায় শরীর স্বাস্থ্যবান করে তুলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। মন ও মেধা ফুর ফুরে থাকে সারাটা দিন ধরে।

এই ভাত নিয়ে গবেষণা করে দেখা গেছে এই ভাতে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি উপাদান রয়েছে যা অন্য কোন খাবারে নেই। যেমনঃ এই ভাতে আয়রণ, ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম ও সোডিয়ামের পরিমাণ বেশি থাকে। এই ভাত খাবার পদ্ধতি অতি প্রাচিন পুরাতন পদ্ধতি। যা অনেক বছর আগে থেকে মানুষ খেয়ে আসচ্ছে। পান্তাতে গরম ও সতেজ ভাত থেকে অনেক বেশি পরিমাণ পুষ্টি উপাদান থাকে। এই ভাত গ্রামের মানুষরা মরিচ, পেঁয়াজ ও লেবু দিয়ে খেতে অনেক বেশি পচন্দ করে। তারা এই ভাত অনেক শখ করে খেয়ে থাকে।

এই ভাত শরীরের কোষ্ঠ-কাঠিণ্য দূর করে এবং শরীর ও মন কে ফুরফুরে রাখে। এই ভাত খেলে শরীরের জন্য এত বেশী উপকারী যা না খেলে বুঝবেন না। সকালে উঠে চেষ্টা করবেন ঘর থেকে বের হওয়ার আগে পান্তা ভাত খেয়ে বের হতে। দেখবেন কাজ করার মতো শরীর ও মন ফ্রেশ থাকবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
error: Content is protected !!