আষাঢ় কবিতা

আষাঢ় কবিতাঃ প্রিয় পাঠক বন্ধুরা আপনাদের জন্য নিয়ে এলাম রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভালো লাগার মতো আষাঢ় কবিতা। আশা করছি পড়তে পেরে ভালো লাগবে।

                                                                                আরো পড়ুন>>> সবার আমি ছাত্র কবিতা

আষাঢ় কবিতা
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

নীল নবঘনে আষাঢ়গগনে তিল ঠাঁই আর নাহি রে।
ওগো, আজ তোরা যাস নে ঘরের বাহিরে।
বাদলের ধারা ঝরে ঝরঝর,
আউশের খেত জলে ভরভর,
কালি-মাখা মেঘে ও পারে আঁধার ঘনিয়েছে দেখ চাহি রে।
ওগো, আজ তোরা যাস নে ঘরের বাহিরে।
“”””ওই ডাকে শোনো ধেনু ঘনঘন, ধবলীরে আনো গোহালে।!!
এখনি আঁধার হবে বেলাটুকু পোহালে।
দুয়ারে দাঁড়ায়ে ওগো দেখ দেখি
মাঠে গেছে যারা তারা ফিরিছে কি?
রাখালবালক কী জানি কোথায় সারা দিন আজি খোয়ালে
এখনি আঁধার হবে বেলাটুকু পোহালে।

শোনো শোনো ওই পারে যাবে বলে কে ডাকিছে বুঝি মাঝিরে।
খেয়া-পারাপার বন্ধ হয়েছে আজি রে।
পুবে হাওয়া বয়, কূলে নেই কেউ,
দু কুল বাহিয়া উঠে পড়ে ঢেউ,
দরদর বেগে জলে পড়ি জল ছলছল উঠে বাজি রে।
খেয়া-পারাপার বন্ধ হয়েছে আজি রে।
ওগো, আজ তোরা যাস নে গো, তোরা যাস নে ঘরের বাহিরে।
আকাশ আঁধার, বেলা বেশি আর নাহি রে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x
error: Content is protected !!